1. newsroom@saradesh.net : News Room : News Room
  2. saradesh.net@gmail.com : saradesh :
প্রয়াত বিশিষ্ট আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলীর রুহের মাগফিরাতে উত্তরবঙ্গ আইনজীবী সমিতির দোয়া মাহফিল - সারাদেশ.নেট
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ১২:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বাধা উপেক্ষা করে সম্মেলন : কল্যাণ পার্টির নতুন চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন পারভেজ, মহাসচিব আবু হানিফ ইতালিয়ান ভাষার উপর সার্টিফিকেট পরীক্ষায় অংশ নিতে ১৭ জুলাইয়ে মধ্যে যোগাযোগা করতে হবে : পরীক্ষা ১৮ জুলাই স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণের লক্ষ্যে ৭ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশে ইতালির ভাষার উপর লেভেল-১ সার্টিফিকেট পরীক্ষা অনুষ্ঠিত মমতা-রাহুলেই ভরসা পশ্চিমবঙ্গবাসীর: শুভেন্দুকে পর্যুদস্ত করে প্রতিষ্ঠিত অভিষেকের নেতৃত্ব .শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের শাহাদাতবার্ষিকীতে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আয়োজন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে ডিপজলের দায়িত্ব পালনে বাধা নেই প্রয়াত বিশিষ্ট আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলীর রুহের মাগফিরাতে উত্তরবঙ্গ আইনজীবী সমিতির দোয়া মাহফিল সরকারী খরচায় অসচ্ছল বিচারপ্রার্থীদের ৩৮৪৮৮৬ মামলায় আইনি সহায়তা কক্সবাজারে সুপ্রিম কোর্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউটের নির্ধারিত স্থান পরিদর্শন করলেন প্রধান বিচারপতি

প্রয়াত বিশিষ্ট আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলীর রুহের মাগফিরাতে উত্তরবঙ্গ আইনজীবী সমিতির দোয়া মাহফিল

  • Update Time : মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০২৪

মু কাইয়ুম, নিজস্ব প্রতিবেদক :
উত্তর বঙ্গ আইনজীবী সমিতি কর্তৃক সিনিয়র আইনজীবী সাবেক এটর্নি জেনারেল এজে মোহাম্মদ আলীর জন্য দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত হয়েছে।

গত ২ মে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন বিশিষ্ট আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর। মৃত্যুকালে স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়েকে রেখে গেছেন তিনি।

এ জে মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুর খবরে সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিমকোর্ট এবং দেশের আইনজীবীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন অগণিত আইনজীবী ও শুভাকাঙ্ক্ষী।

আইনজীবীরা জানান, আইনজীবী হিসেবে দল মত নির্বিশেষ তিনি সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য ছিলেন। তিনি অত্যন্ত বিনয়ী, ভদ্র ও ভালো মানুষ ছিলেন।
বিশিষ্ট আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলীর বাবা এম এইচ খন্দকার। তিনি ছিলেন দেশের প্রথম এটর্নি জেনারেল ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ছিলেন।

এ জে মোহাম্মদ আলী ১৯৭৮ সালে আইনজীবী হিসেবে সনদ পান। ১৯৮০ সালে হাইকোর্ট বিভাগের এবং ১৯৮৫ সালে আপিল বিভাগে আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন।

২০০১ সালের অক্টোবরে অতিরিক্ত এটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগ পান এ জে মোহাম্মদ আলী। পরে তিনি দেশের দ্বাদশ এটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগ পান। ২০০৫ সালের ৩০শে এপ্রিল থেকে ২০০৭ সালের ২৪শে জানুয়ারি পর্যন্ত এ দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ২০১৩-১৪ মেয়াদে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির (সুপ্রিম কোর্ট বার) সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এ জে মোহাম্মদ আলী।

বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের নির্বাহী কমিটিরও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাচিত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন এ জে মোহাম্মদ আলী।

এমকে/ডিএ//

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *