1. newsroom@saradesh.net : News Room : News Room
  2. saradesh.net@gmail.com : saradesh :
লাদাখ থেকে সৈন্য সরিয়ে নিল ভারত ও চীন - সারাদেশ.নেট
শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০৪:২০ অপরাহ্ন

লাদাখ থেকে সৈন্য সরিয়ে নিল ভারত ও চীন

  • Update Time : সোমবার, ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

সারাদেশ ডেস্ক : হিমালয়-সংলগ্ন লাদাখের বিতর্কিত প্যাংগং লেক এলাকা – যেখানে গত জুন মাসে এক রক্তাক্ত সংঘর্ষে ভারত ও চীনের অন্তত ২৪ জন সৈন্য নিহত হয়েছিল – সেখান থেকে দু’দেশই তাদের সৈন্যদের সরিয়ে নেয়ার কাজ শেষ করেছে।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রচার করা এক যৌথ বিবৃতিতে একথা জানানো হয়।

এই এলাকাটিতে ভারত ও চীনের সীমান্ত স্পষ্টভাবে চিহ্নিত না হওয়ায় তা দু’দেশের সৈন্যদের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টির কারণ হয়ে ওঠে। প্যাংগং লেকের উত্তর ও দক্ষিণ তীরে দু’পক্ষই বিপুল পরিমাণ সৈন্য মুখোমুখি অবস্থানে মোতায়েন রেখেছিল।

ভারতের লাদাখ ও চীন-নিয়ন্ত্রিত আকসাই-চীন এলাকায় গত কয়েক মাসে দু’দেশের হাজার হাজার সৈন্য মোতায়েন হওয়ায় – যে কোন সময় সংঘাত বাধতে পারে এমন আশঙ্কা দেখা দিয়েছিল।

গত ১১ই ফেব্রুয়ারি ভারত ও চীন লাদাখের প্যাংগং লেক এলাকা থেকে দু’দেশই তাদের সৈন্যদের সরিয়ে নেবার ইচ্ছের কথা ঘোষণা করে। এর পর থেকে সৈন্য সরিয়ে নেবার কাজ চলছিল।

এর পর শনিবার ভারত ও চীনের উর্ধতন সামরিক কম্যান্ডাররা তাদের বিতর্কিত সীমান্ত এলাকায় সৃষ্ট উত্তেজনা প্রশমনের জন্য ৯ দফায় বৈঠক করেন। দু’দেশই এখন বলছে যে তারা দু’দেশের দীর্ঘ সীমান্তের অন্য এলাকাগুলোতেও শান্তি বজায় রাখার জন্য কাজ করবে।

ভারত ও চীনের মধ্যে গত বহু দশক ধরে সীমান্ত নিয়ে উত্তেজনা চলছে এবং ১৯৬২ সালে তাদের মধ্যে যুদ্ধও হয়েছে।

দু’দেশের মধ্যে মোট ২ হাজার ১০০ মাইল সীমান্ত রয়েছে – যা বহু জা্য়গাতেই সুনির্দিষ্টভাবে চিহ্নিত নয়।

গত শনিবার গালওয়ান উপত্যকায় চীন ও ভারতের সৈন্যদের মধ্যেকার জুন মাসের সংঘর্ষের একটি ভিডিও প্রকাশ করে চীনা কর্তৃপক্ষ। শুক্রবারই এই প্রথমবারের মত চীন স্বীকার করে যে ওই ঘটনায় তাদের চারজন সৈন্য নিহত হয়েছিল।

চীনা রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যমে বলা হয় ‘বিদেশী সৈন্যদের সাথে লড়াই করার সময়’ তাদের সৈন্যরা নিহত হয় – যারা সীমান্ত পেরিয়ে চীনের ভুখণ্ডে ঢুকেছিল। ভারত অবশ্য দাবি করে যে চীনা পক্ষে নিহত সৈন্যের সংখ্যা আরো বেশি।

গালওয়ান উপত্যকার ওই রক্তাক্ত সংঘাতে ২০ জন ভারতীয় সৈন্য নিহত হয়েছিল। জানা যায়, যে দুদেশের সৈন্যদের মধ্যে হাতাহাতি লড়াই হয় এবং পাথর ও পেরেক বসানো লাঠি ব্যবহার করা হয়। সীমান্তের ওই এলাকায় দু’দেশের সৈন্যদের মধ্যে গত ৪৫ বছরে এটাই ছিল প্রথম মারাত্মক সংঘর্ষের ঘটনা।

এ বছর জানুয়ারি মাসে উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় সিকিম সীমান্তেও দুই দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে আরো একদফা সংঘর্ষ হয়।

সূত্র : বিবিসি

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *